মুখে বেবি অয়েল লাগানোর ৭টি উপকারিতা


বেবি অয়েল হল একটি সাধারণ গৃহস্থালি আইটেম যা সাধারণত শিশুদের সূক্ষ্ম ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে ব্যবহৃত হয়। তবে মুখে বেবি অয়েল ব্যবহারের উপকারিতা সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। এই প্রবন্ধে, আমরা মুখে বেবি অয়েল লাগানোর উপকারিতা সম্পর্কে আলোচনা করব।

মুখে বেবি অয়েল লাগানোর ৭টি উপকারিতা: ৭ মুখে বেবি অয়েল লাগানোর উপকারিতা

1. ত্বক ময়শ্চারাইজ করুন

বেবি অয়েল একটি দুর্দান্ত ময়েশ্চারাইজার যা ত্বককে হাইড্রেটেড এবং নরম রাখতে সাহায্য করতে পারে। এটি বিশেষত শুষ্ক ত্বকের লোকদের জন্য বা শীতের মাসগুলিতে যখন ত্বক আরও শুষ্ক এবং ফ্ল্যাকি হয়ে যায় তাদের জন্য উপকারী।

2. wrinkles প্রতিরোধ

বেবি অয়েল ত্বককে আর্দ্র ও হাইড্রেটেড রেখে বলিরেখা প্রতিরোধ করতে সাহায্য করতে পারে। এটি ত্বককে প্লাম্প করে এবং মসৃণ করে সূক্ষ্ম রেখা এবং বলির উপস্থিতি কমাতেও সাহায্য করতে পারে।

3. ত্বকের জ্বালা প্রশমিত করুন

বেবি অয়েলে প্রাকৃতিক উপাদান রয়েছে যা ত্বকের জ্বালা এবং প্রদাহকে প্রশমিত করতে সাহায্য করে। এটি বিশেষত সংবেদনশীল ত্বকের জন্য বা যারা একজিমা বা সোরিয়াসিসের মতো ত্বকের সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য বিশেষভাবে উপকারী।

4. মেকআপ সরান

বেবি অয়েল একটি কার্যকর মেকআপ রিমুভার যা এমনকি সবচেয়ে কঠিন জলরোধী মেকআপ অপসারণ করতে সাহায্য করতে পারে। এটি ত্বকে মৃদু এবং কোন অবশিষ্টাংশ বা চর্বিযুক্ত অনুভূতি পিছনে ফেলে না।

5. শেভিং সাহায্য

বেবি অয়েলকে প্রি-শেভ অয়েল হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে ত্বককে নরম করতে এবং শেভিংকে সহজ করতে। এটি ত্বককে প্রশমিত করতে এবং রেজার পোড়া প্রতিরোধ করতে পোস্ট-শেভ ময়েশ্চারাইজার হিসাবেও ব্যবহার করা যেতে পারে।

6. চকচকে বাড়ান

শিশুর তেল ময়শ্চারাইজিং এবং পুষ্টির মাধ্যমে ত্বকের প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করতে পারে। এটি ত্বকের টোনকে আরও দূর করতে এবং কালো দাগ এবং দাগ কমাতেও সাহায্য করতে পারে।

7. সূর্যের ক্ষতি থেকে রক্ষা করুন

ক্ষতিকারক UV রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে বেবি অয়েল প্রাকৃতিক সানস্ক্রিন হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। এটি একটি নিয়মিত সানস্ক্রিনের প্রতিস্থাপন নয়, তবে সুরক্ষার একটি অতিরিক্ত স্তর হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।

কিভাবে মুখে শিশুর তেল লাগাবেন

মুখে বেবি অয়েল লাগাতে এই সহজ ধাপগুলো অনুসরণ করুন:-

1. একটি মৃদু ক্লিনজার দিয়ে আপনার মুখ ধুয়ে নিন এবং একটি নরম তোয়ালে দিয়ে শুকিয়ে নিন।

2. আপনার আঙ্গুলের ডগায় অল্প পরিমাণে বেবি অয়েল লাগান।

3. আপনার মুখে বৃত্তাকার গতিতে তেল ম্যাসাজ করুন।

4. তেলটি আপনার ত্বকে কয়েক মিনিটের জন্য ভিজতে দিন।

5. আপনার মুখ থেকে কোনো অতিরিক্ত তেল অপসারণ করতে টিস্যু ব্যবহার করুন।

সতর্কতা

যদিও বেবি অয়েল সাধারণত বেশিরভাগ লোকের জন্য নিরাপদ, তবে সম্ভাব্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলি এড়াতে সতর্কতা অবলম্বন করা গুরুত্বপূর্ণ, যেমন আটকে থাকা ছিদ্র বা ব্রণ ব্রেকআউট। জ্বালা এড়াতে উচ্চ মানের, সুগন্ধিমুক্ত শিশুর তেল বেছে নেওয়াও গুরুত্বপূর্ণ।

**মুখে বেবি অয়েল লাগালে ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করা, বলিরেখা রোধ করা, ত্বকের জ্বালাপোড়া প্রশমিত করা, মেকআপ অপসারণ করা, শেভিংয়ে সাহায্য করা, চকচকে বাড়ানো এবং সূর্যের ক্ষতি থেকে রক্ষা করা সহ অনেক উপকার পাওয়া যায়। এটি ত্বককে সুস্থ, নরম এবং উজ্জ্বল রাখার একটি সহজ এবং সস্তা উপায়।

দাবিত্যাগ: এই বিষয়বস্তু, পরামর্শ সহ, শুধুমাত্র সাধারণ তথ্য প্রদান করে। এটা কোনোভাবেই যোগ্য চিকিৎসা মতামতের বিকল্প নয়। আরও বিস্তারিত জানার জন্য সর্বদা একজন বিশেষজ্ঞ বা আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন। স্পোর্টসকিদা হিন্দি এই তথ্যের দায় স্বীকার করে না।






Source link

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top